নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর

news paper

এস এম মোজতাহীদ প্লাবন, নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশিত: ২১-১১-২০২৩ বিকাল ৫:৫৭

53Views

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় ও কুষ্টিয়ায় অবস্থিত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশের মধ্যে আজ ২১ নভেম্বর ২০২৩, মঙ্গলবার শিক্ষা-গবেষণা-উন্নয়ন ক্ষেত্রে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া ক্যাম্পাসে উপাচার্যের কার্যালয়ে এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। 

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ ড. মো. হুমায়ুন কবীর এবং ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে কোষাধ্যক্ষ  অধ্যাপক ড. মোঃ আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর এবং ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক শেখ আবদুস সালাম। 

সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরকালে  দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আতাউর রহমান,  পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের পরিচালক প্রকৌশলী জনাব মোঃ হাফিজুর রহমান, এপিএ ফোকাল পয়েন্ট ও অতিরিক্ত পরিচালক অডিট জনাব রাধেশ্যাম। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান, রেজিস্ট্রার জনাব আলী হাসান, এপিএ ফোকাল পয়েন্ট জনাব চন্দনকুমার দাস সহ প্রক্টর, আইকিউএসি পরিচালক, অন্যান্য কর্মকর্তা। 

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর বলেন, শিক্ষা গবেষণা উন্নয়নকে সামনে রেখে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় তার অগ্রযাত্রা নতুন করে শুরু করেছে। উন্নত ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে শিক্ষা ও গবেষণার ক্ষেত্রে একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের পারস্পরিক সহযোগিতা আমাদের আরও শাণিত করবে। সে কারণে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে এই সমঝোতা চুক্তি অতীব গুরুত্বপূর্ণ। তিনি শুধু চুক্তির মধ্যেই সীমাবদ্ধ না রেখে এটিকে কার্যকর করার দিকেও অধিক গুরুত্ব আরোপ করেন।  

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক শেখ আব্দুস সালাম বলেন, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে এই চুক্তির মাধ্যমে উভয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষকদের গবেষণার ক্ষেত্রে সহযোগিতা বৃদ্ধি পাবে ও তারা প্রভূত উন্নতি করতে পারবেন। 

পরে দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এবং পরিকল্পনা ও উন্নয়নের পরিচালক পৃথক বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয় অর্গানোগ্রামসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় বিষয় সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন। উল্লেখ্য, পাঁচ বছরের জন্য এই সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।


আরও পড়ুন