ভিউয়ার্স বাড়ানোর প্রতিযোগিতায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি : অপু বিশ্বাস

news paper

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬-৮-২০২৩ বিকাল ৫:৫৫

33Views

পাইরেসি ও আপত্তিকর কনটেন্ট তৈরির অভিযোগে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) কার্যালয়ে অভিযোগ করেছেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। তিনি বলেন, ভিউয়ার্স বাড়ানোর প্রতিযোগিতায় আমরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি।

অপু বলেন, লাল শাড়ি ছবিটি আমার অনেক কষ্টের। ছবিটি নিয়ে পাইরেসির কথা বলতে আমি ডিবিতে এসেছিলাম। পাশাপাশি আপনারা জানেন যে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাইবার বুলিং অনেক বেড়ে গেছে। কারণে-অকারণে ভিউয়ার্স বাড়ানোর আশায় সাইবার বুলিং করা হচ্ছে। আর সাইবার বুলিং মানুষের স্বাভাবিক জীবনকে বাধাগ্রস্ত করে, এটা কারো কাম্য নয়। কারণ বেলা শেষে আমরা সবাই পরিবারে বসবাস করি।

রোববার (৬ আগস্ট) বিকেল সাড়ে ৩টায় ডিবি কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

অপু বিশ্বাস বলেন, আপনারা জানেন, আমি একটি সিনেমা করেছি– লাল শাড়ি। লাল শাড়ির পাইরেসিরোধে ও ফেসবুকে আপত্তিকর কনটেন্ট তৈরির বিষয়ে অভিযোগ করেছি ডিবি কার্যালয়ে।

তিনি বলেন, লাল শাড়ি সিনেমাটির নির্মাতা আমি। এটি একটি অনুদানের ছবি। কয়েকদিন আগে সুড়ঙ্গ চলচ্চিত্রটি পাইরেসির শিকার হয়েছিল। পাইরেসির শিকার হয়ে চলচ্চিত্রটির টিম ডিবির কাছে এসেছিল। এরপর গোয়েন্দারা এ ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় এনেছে।

এই চিত্রনায়িকা বলেন, আমাদেরও পারিবারিক অবস্থান আছে। হয়ত আমি চিত্রনায়িকা কিন্তু বিভিন্ন সময়ে অনেক নিউজের সামনে পড়তে হয়। আরও একটা কথা বলতে চাই, আমরা আর্টিস্টরা বিভিন্ন দেশে যাই। সেখানে দেশের প্রতিনিধিত্ব করি। সেটা নিয়ে বুলিং হলে আমাদের ইমেজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

অপু বিশ্বাস বলেন, সাইবার বুলিংয়ের কথা আমি ডিবিতে অবগত করতে এসেছি। আমি সাইবার বুলিংয়ের বিরুদ্ধে একটি সুষ্ঠু বিচার চেয়ে আবেদন করেছি। তবে কার বা কোনো পেজের বিরুদ্ধে অভিযোগ তা এখনই বলতে চাইছি না। আমি তো অভিযোগ দিয়েছি। ডিবির সাইবার ক্রাইমে যারা আছেন, তারা আমাকে আশ্বস্ত করেছেন।

এর আগে ডিবি কার্যালয়ে আসার পর অপুর সঙ্গে দুপুরের খাবার খান ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার হারুন অর রশীদ। এসময় খাবার টেবিলে তাদের সঙ্গে আরও কয়েকজন ছিলেন।

পরে হারুন অর রশীদ সাংবাদিকদের জানান, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নেতিবাচক, মিথ্যা ও বিভ্রান্তিমূলক তথ্য প্রচারের অভিযোগ নিয়ে ডিবি কার্যালয়ে এসেছেন অপু বিশ্বাস।


আরও পড়ুন