আমরা সামনের দিন গুলোতেও একই সাথে পথ চলতে চাই

news paper

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৪-৭-২০২৩ রাত ৮:৫৪

54Views

কলাবোরেশন বা সহযোগিতাই হচ্ছে অগ্রগতির মূল, এই ধারণা কে সামনে রেখে পথ চলা শুরু করেছে আইবিসিইইপি বা ইন্দো-বাংলা সাংস্কৃতিক এবং অর্থনৈতিক আদান-প্রদান প্রোগ্রাম। নাম শুনে ঠিক যেটা আছ করা যায় যে এই উদ্যোগটি দুই দেশের মজবুত বন্ধনের ভিত্তি কে আরো সামনের দিকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য কাজ করবে। এর ব্যাপ্তি সংস্কৃতি এবং অর্থনীতিক দুইটি ক্ষেত্রেই বিস্তৃত।

এই উদ্যোগটি এরই অংশ হিসাবে এই অর্গানাইজেশন নভেম্বর ২০২২ তে বাংলাদেশের এক সনামধন্য ফ্যাশন হাউসের সাথে সম্মিলিত ভাবে একটি ক্যাম্পেইন করে, যেখানে সিটি অফ জয়, কলকাতার বিভিন্ন নামি স্থাপনা ও ঐতিহ্যের সাথে মেলবন্ধন হয় বাংলাদেশের ডিজাইন করা এবং প্রস্তুত করা কাপড়ের। ক্যাম্পেইনটি দুই বাংলাতেই বেশ সারা ফেলে।

এই ধরনের আরো উদ্যোগ সামনে রেখে আইবিসিইইপি পথ চলতে চায় সামনের দিনে। এরই ধারাবাহিকতা তে গত ২২ জুন ২০২৩ কলকাতার এক ৫ তারকা হোটেল এ তারা সন্মাননা দেয় কিছু কাছের শুভাকাঙ্খি দের। এখানে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি অঙ্গনের কিছু উজ্জ্বল মুখ এবং বাবসায়ী মহলের কিছু সমাদৃত নাম।

এই আয়োজনের ব্যাপারে আইবিসিইইপি ইন্ডিয়া কান্ট্রি হেড রঞ্জন নাথ বলেন, "আমরা পাশাপাশি দেশ, আমরা প্রতিবেশী, আমরা প্রতিবেশীদের সাথে মিশে একে অন্যকে তুলে ধরবো, এক অন্য উচ্চতায় যদি আমরা আমাদের সংস্কৃতি এবং অর্থনীতিকে দেখতে চাই সেখানে একসাথে হাত এ হাত রেখে চলা ছাড়া ভালো কোনো উদ্যোগ হতে পারে না। আমরা সামনের দিন গুলোতেও একই সাথে পথ চলতে চাই।"

এই আয়োজনে সন্মান পেয়েছেন বাংলাদেশের স্বনামধন্য ফ্যাশন ডিজাইনার এবং ফ্যাশন লেকচারার "নাহারিন চৌধুরী”। তার অনুভূতি জানতে চাইলে বলেন, “গ্লোবালাইজেশনের এই সময়টা তে একে অন্যের ভালোকে আইডল করে সেলিব্রেট না করতে পারলে প্রগ্রেস আশা করতে পারি না আমরা। আমি প্রথম থেকেই আইবিসিইইপি সাথে খুব স্ট্রংলি জরিত, এদের ভিশনের সাথে জরিত। আজকে এই সন্মান আমাকে আরো স্ট্রংলি সংযুক্ত করবে আইবিসিইইপি এর সাথে, আরো ভালো ভালো কাজ করার উৎসাহ দিবে।”


আরও পড়ুন