কৃষি গুচ্ছের আবেদন শুরু হচ্ছে আজ

news paper

মারসিফুল আলম রিমন, পবিপ্রবি

প্রকাশিত: ৮-৬-২০২৩ দুপুর ১১:৪

27Views

কৃষি প্রাধান্য ৮টি বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তির জন্য আবেদন শুরু হচ্ছে আজ। ১০ জুলাই পর্যন্ত আবেদন করতে পারবে আগ্রহী শিক্ষার্থীরা।  এবছর বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে শিক্ষার্থী ভর্তি নিবে ৩ হাজার ৫৪৮ জন। এবছর আবেদন ফি নির্ধারণ করা হয়েছে ১ হাজার ২০০ টাকা। 

আগামী ৫ আগস্ট শনিবার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ৮টি কেন্দ্র একযোগে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।আবেদনের জন্য ২০১৮, ২০১৯ ও ২০২০ সালে এসএসসি/সমমান এবং ২০২১ ও ২০২২ সালে এইচএসসি/সমমান ও ২০২১ সালে মানোন্নয়ন পরীক্ষায় যাঁরা বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জীববিজ্ঞান, রসায়ন, পদার্থবিজ্ঞান, গণিত বিষয়সহ উত্তীর্ণ হতে হবে। আবেদনকারীর উভয় পরীক্ষার প্রতিটিতে চতুর্থ বিষয় ব্যতীত ন্যূনতম জিপিএ ৪ এবং সর্বমোট ন্যূনতম জিপিএ ৮.৫০ থাকতে হবে।

এবছর সর্বমোট ১০০ নম্বরের এমসিকিউ পদ্ধতিতে পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। ২০২২ সালের এইচএসসি/সমমানের পরীক্ষার সিলেবাস অনুযায়ী ইংরেজিতে ১০, প্রাণিবিজ্ঞানে ১৫, উদ্ভিদবিজ্ঞানে ১৫, পদার্থবিজ্ঞানে ২০, রসায়নে ২০ এবং গণিতে ২০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি সঠিক উত্তরের জন্য ১ (এক) নম্বর প্রদান করা হবে এবং প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য শূন্য দশমিক ২৫ নম্বর কাটা যাবে।

এবছর বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ হাজার ১১৬ আসন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩৭৫ আসন, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬৯৮ আসন, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪৪৩ আসন, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৪৫ আসন, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪৩১ আসন, খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৫০ আসন এবং হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৯০ আসন রয়েছে।

এবার ভর্তি পরীক্ষায় মোট আটটি কেন্দ্র থাকবে। ১. বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ, ২. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর, ৩. শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা; ৪. পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী; ৫. চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম; ৬. সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট; ৭. খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা; এবং ৮ হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, হবিগঞ্জে একযোগে অনুষ্ঠিত হবে।

আবেদনকারী তার আবেদনের সময় পছন্দমত বিশ্ববিদ্যালয় তালিকার শীর্ষে দিয়ে ১ থেকে ৮ পর্যন্ত পছন্দক্রম দিতে হবে। পরবর্তীতে আসন শূণ্য থাকা সাপেক্ষে শিক্ষার্থীদের আসন বিন্যাস করা হবে। এক্ষেত্রে পছন্দক্রম ও আবেদন ফি প্রদানের তারিখ ও সময়ের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে পরীক্ষাকেন্দ্র নির্ধারণ করা হবে।


আরও পড়ুন