বকশীগঞ্জে পূর্ব বিরোধের জেরে বাড়ির সামনে বাঁশেরর বেড়া

news paper

মোঃ রুবেল মিয়া, বকশীগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৮-৩-২০২৩ বিকাল ৫:৫৫

11Views

জামালপুরের বকশীগঞ্জে পূর্ব বিরোধের জেরে আবুল হোসেন নামে এক ব্যাক্তির বাড়ির বসত ভিটায় থাকা বিভিন্ন জাতের ফলজ গাছ ও বাশঁ কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে চাচাতো ভাই উকিল উদ্দিন ফকিরের বিরুদ্ধে। একই সময়ে উকিল উদ্দিন ফকিরের লোকজন বাড়ির সামনে বাশেঁর বেড়া দিয়ে আবুল হোসেনের পরিবারকে অবরুদ্ধ করে ফেলে। মঙ্গলবার সকালে উপজেলার নিলাক্ষিয়া ইউনিয়নের কুশলনগর দক্ষিণ পাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

কৃষক আবুল হোসেন বলেন,তার ৩ ছেলে ও ১ মেয়ে। ছেলেরা জীবিকার তাগিদে ঢাকায় থাকে আর মেয়ে থাকে শশুরবাড়ি। তিনি এবং তার স্ত্রী বাড়িতে থাকেন। তারই চাচাতো ভাই প্রভাবশালী উকিল উদ্দিন ফকির তার সাথে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শত্রুতা পোষন করিয়া আসছে। ফকির,তার ছেলে শাকিল ও জাকির দীর্ঘদিন যাবত নানা ভাবে তাকে ও তার স্ত্রীকে নির্যাতন করে আসছে। প্রতিনিয়তই তারা তাদের ভয়ে থাকেন। সোমবার বিকালে উকিল উদ্দিন ফকির ও তার ছেলেরা লাঠিসোঠা নিয়ে তাকে মারতে আসেন। ভয়ে তিনি ঘর থেকে বের হননি। খবর পেয়ে আবুল হোসেনের দুই ছেলে ঢাকা থেকে বাড়িতে আসে। মঙ্গলবার সকালে উকিল উদ্দিনের ছেলে ও তার সহযোগীরা লাঠিসোঠা নিয়ে আবরো আবুল হোসেনের বাড়িতে চড়াও হয়। এ সময় তারা বসতভিটায় থাকা বিভিন্ন প্রজাতির গাছ ও বাশঁ কেটে নিয়ে যায়। এবং বাঁশ দিয়ে বাড়ির সামনে বেড়া দেয়। এতে অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে আবুল হোসেনের পুরো পরিবার। তাদের ভয়ে বাড়ির বাইরে ল্যাট্রিনেও যেতে পারছেন না তারা। এতে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলেও জানান তিনি।

এ ব্যাপারে উকিল উদ্দিন ফকির বলেন,আবুল হোসেন অনেকদিন আগে তার কাছে জমি বিক্রি করেছেন। কিন্তু জমিও দিচ্ছেন না টাকাও দিচ্ছেন না। তাই বাশঁ দিয়ে আমার সীমানা ঠিক করেছি। 

নিলাক্ষিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সাত্তার বলেন,বিষয়টি আমি শুনেছি। পরে ঘটনাস্থলে ইউপি সদস্য সুজা উদ্দিনকে পাঠিয়েছি। পরবর্তীতে উভয়পক্ষকে নিয়ে বসে বিষয়টি সুরাহা করার কথা বলেছি। 

বকশীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: সোহেল রানা বলেন,এ বিষয়ে কেউ অভিযোগ দেইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

 


আরও পড়ুন