মানুষের সেবক হতে চান মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পাওয়া রুহি

news paper

জামাল বাদশা, লালমনিরহাট

প্রকাশিত: ২৮-৩-২০২৩ বিকাল ৫:৪৬

16Views

ডাক্তার হয়ে দেশের মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চান মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় সুপারিশ প্রাপ্ত হওয়া শিক্ষার্থী রুবানা তাহসিন রুহি। রুবানা তাহসিন রুহি লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার কাকিনা উত্তর বাংলা কলেজের সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ও বর্তমানে বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডক্টর আবু শাহাদত রুবেল ও তানজিনা হক জুলিয়া দম্পত্তির প্রথম কন্যা এমবিবিএস কোর্সে ঢাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুপারিশ পেয়েছেন। বাবা-মার অনুপ্রেরণা এবং শিক্ষকদের যথার্থ শিক্ষাদান ও নিজের কঠোর অধ্যবসায়ের কারণে তিনি এ সফলতা অর্জন করেছেন বলে জানান স্বজনরা।
 
এমবিবিএস কোর্সে ভর্তির সুপারিশ প্রাপ্ত হওয়ার বিষয়টি একান্ত আলাপচারিতায় নিশ্চিত করেছেন ওই শিক্ষার্থীর মা তানজিনা হক জুলিয়া। তিনি বলেন, ইতিপূর্বেও রুবানা তাহসিন রুহি উপজেলার কাকিনা শিশু নিকেতন থেকে পঞ্চম শ্রেণিতে জিপিএ-৫ সহ বৃত্তি, জেএসসি, এসএসসিতে কাকিনা মহিমা রঞ্জন স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ সহ বৃত্তি পেয়ে সাফল্য অর্জন করেছেন। এছাড়া রংপুর ক্যান্টপাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এইচএসসিতে বিজ্ঞান বিভাগে দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের স্কলারশিপসহ জিপিএ-৫ প্রাপ্ত হন।
 
রুবানা তাহসিন রুহি বলেন, ভবিষ্যতে তিনি এমবিবিএস পাস করে স্কলারশিপ নিয়ে উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন করে দেশে ফিরে মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চান। তার ইচ্ছা পূরণের লক্ষ্যে সকলের কাছে দোয়া কামনা করেন।
 
এ প্রসঙ্গে রুহির বাবা বলেন, শিক্ষার্থী মেধাবী হয়ে জন্মায় না; তাকে মেধাবী করে গড়ে তুলতে হয়। অন্য দিকে নিজের শেখানো স্বপ্ন (বড় হয়ে ডাক্তার হব, ইঞ্জিনিয়ার হব) অন্যের মাধ্যমে বাস্তবায়ন একেবারেই অসম্ভব। এ ক্ষেত্রে রুহির মেডিকেল সায়েন্স নিয়ে পড়ার স্বপ্নটা নিছক ওর নিজের বলেই এমন সাফল্য এসেছে। মোট কথা, আমি চাই প্রত্যেক শিক্ষার্থী তার নিজের স্বপ্ন নিজেই রচনা করুক। বাবা-মা কেবল অনুপ্রেরণা দিলেই চলে।

আরও পড়ুন