ঢাকা বৃহষ্পতিবার, ১৮ আগস্ট, ২০২২

ভারতের কাছে হেরে বাংলাদেশের স্বপ্নভঙ্গ


স্পোর্টস ডেস্ক  photo স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ৬-৮-২০২২ দুপুর ১০:৩৫

সাফ অনূর্ধ্ব-২০ চ্যাম্পিয়নশিপে সব ম্যাচ জিতে ফাইনালে উঠে শেষ হাসি হাসতে পারেনি বাংলাদেশ। নির্ধারিত সময়ে ২-২ গোলের সমতার পর ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। নির্ধারিত সময় আর অতিরিক্ত সময়ে যেন দুই বাংলাদেশ। ৬ মিনিটের মধ্যে তিন গোল হজম করে বাংলাদেশ। শুক্রবার ভুবনেশ্বরের কলিঙ্গ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফাইনালে ৫-২ গোলে বাংলাদেশকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ভারত।

এই ভারতের সঙ্গে নির্ধারিত ৯০ মিনিটে দুর্দান্তভাবে লড়াই করেছে বাংলাদেশ। কখনো মনে হয়েছে বাংলাদেশ জিতবে আবার কখনো ভারত। পেন্ডুলামের মতো দুলতে থাকা ম্যাচটি একেবারে একপেশে হয়ে যায় অতিরিক্ত সময়ে। 

পুরো ম্যাচ জুড়ে বাংলাদেশের রক্ষণ ও গোলরক্ষককে পরীক্ষায় রাখছিলেন গুরকিরাত সিং ও হিমাচুচাংরা। অতিরিক্ত সময়ে এই দুজন বাংলাদেশকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দেয়। প্রথম তিন মিনিটের মধ্যে ভারত দুই গোল করে লিড নেয়। 

অতিরিক্ত সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে মিডফিল্ড থেকে বাড়ানো থ্রু পাসে ডান প্রান্তে বলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে হিমাচুচাংরা আগুয়ান গোলরক্ষক আসিফকে পরাস্ত করেন। পরের মিনিটে গোল করেন গুরকিরাত সিং। এটাও লম্বা বাড়ানো এক বলে আগুয়ান গোলরক্ষককে পরাস্তের পরিণতি। 

এই গোলের মাধ্যমে গুরকিরাত হ্যাটট্রিক করেন। হ্যাটট্রিকের উল্লাসে জার্সি খুলে হলুদ কার্ড দেখেন। কিন্তু এই গোলের মাধ্যমে ভারতের জয়ের ভিত তৈরি হয়। 

স্কিল, ফিটনেস, ম্যাচ টেম্পারমেন্টে বাংলাদেশের চেয়ে ভারত যে বেশ এগিয়ে সেটি এই ম্যাচে প্রমাণ হয়েছে। অথচ ভারত এই টুর্নামেন্টের যাত্রা শুরু করেছিল বাংলাদেশের কাছে হেরে। 

প্রথমার্ধে ৪৫ মিনিটে শাহীনের গোলে বাংলাদেশ লিড নেয়ার কিছুক্ষণ পরেই ভারত গুরকিরাতের গোলে সমতা আনে। ডিফেন্ডার শাহীন শুধু গোল করে নয়, গোল সেভ করেও বাংলাদেশকে বাঁচিয়েছেন। ৬৯ মিনিটে ভারতের এক সংঘবদ্ধ আক্রমণে গোলরক্ষক আসিফ পরাস্ত হয়েছিলেন। বল গোললাইন ক্রস করার মুহূর্তে ক্লিয়ার করেন শাহীন। 

বাংলাদেশের গোলরক্ষক আসিফ দুর্দান্ত কয়েকটি সেভ করেছেন। বিশেষ করে ম্যাচের ৯০ মিনিটে বাম দিকে ঝাপিয়ে পড়ে। 

প্রথমার্ধের নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে রাজন হাওলাদারের গোলে সমতা আনে বাংলাদেশ। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে বাংলাদেশ মধ্য বিরতিতে ১-১ গোলের সমতা নিয়ে ড্রেসিংরুমে ফিরে। 

দ্বিতীয়ার্ধে নিজেরা গোল করে এগিয়ে গেলেও ভারত সমতায় ফিরে আসতে খুব বেশি সময় নেয়নি। কিক অফের ২৫ সেকেন্ডে ভারত পেনাল্টি পেয়েছিল। সেই পেনাল্টি থেকে দ্বিতীয় মিনিটে গুরকিরাত গোল করে স্বাগতিক দলকে লিড এনে দেয়। 

২-২ গোলে নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার পর ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত ৩০ মিনিটে। এই অতিরিক্ত সময়েই সমস্ত প্রতিরোধ ভেঙে পড়ে বাংলাদেশের। শুরুতেই তিন মিনিটের ব্যবধানে দুই গোল করে বসে ভারতের অনূর্ধ্ব-২০ দলের ফুটবলাররা। এরপর করে আরও এক গোল। 

সব মিলিয়ে ভারতের জয় ৫-২ গোলের ব্যবধানে।

প্রীতি / প্রীতি